বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম (পরীক্ষামুলক স¤প্রচার)

স্কটল্যান্ডে করোনা ভাইরাস (বিস্তারিত)

করোনা প্রতিরোধে স্কটল্যান্ড ‘‘লকড ডাউন”




স্টাফ রিপোর্ট (এডিনবরা, ২৩ মার্চ ২০২০)
বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসকে প্রতিহত করতে স্কটল্যান্ডকে কার্যত অচল ঘোষনা করা হয়েছে। ফার্স্ট মিনিষ্টার নিকোলা স্টার্জন সোমবার রাতে এক ঘোষনায় জানিয়েছেন খাবার ও ঔষধ ছাড়া সব ধরনের দোকান পাট বন্ধ থাকবে। দুই জনের বেশী লোক একসাথে জড়ো হতে পারবে না এবং পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সবাইকে যার যার ঘরে থাকতে হবে।
মুলত করোনার ভাইরাসের সংক্রমনের গতি কিছুটা মন্থর করতে এ উদ্যোগ নেয়া। এর ফলে কম লোক আক্রান্ত হবে এবং জরুরী স্বাস্থ্য সেবার উপর চাপ কিছুটা কমতে পারে। বর্তমানে যে হারে ভাইরাস বিস্তৃত হচ্ছে সেই হারে বাড়তে থাকলে এক সপ্তাহ পর স্কটল্যান্ডের কোন হাসপাতালে মুমুর্ষ রোগীকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য কোন বেড খালি থাকবে না।
বর্তমানে ইউকে ব্যাপী সর্বমোট ৩৩৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করেছেন। স্কটল্যান্ডে মারা গেছেন ১০ জন। বিশেষ করে গত দুই দিনে স্কটল্যান্ডে মৃত্যুর দ্বিগুন হওয়াতে বিশেষজ্ঞরা এই কঠোরতম পদক্ষেপ নিয়েছেন।
গত সপ্তাহান্তে স্কুল, কমিউনিটি সেণ্টার, রেষ্টুরেন্ট, ধর্মীয় উপাসনালয়, পাব, জীম ও লেসার সেন্টার ইত্যাদি বন্ধ করা হয়েছিল।
সোমবার রাতে এডিনবরাস্থ সেন্ট এন্ড্রুস হাউসে এক সংবাদ বিফিং কালে নিকোলা স্টার্জন বলেন, আমি স্পস্ট করে স্কটল্যান্ডের জনগনকে জানিয়ে দিতে চাই আমরা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছি । সবাইকে অবশ্যই যার যার ঘরে থাকতে হবে। আমাদের নির্দেশনা সবাইকে অবশ্যই মেনে চলতে হবে নতুবা আইনগত কঠোর পদক্ষেপ নিতে আমরা বাধ্য হব । নিচের কয়েকটি ক্ষেত্রে শুধুমাত্র ব্যাতিক্রম রয়েছে যথা:

জরুরী শপিং যেমন খাবার ও ঔষধ ইত্যাদি কেনার জন্য দিনে একবার বাইরে বের হওয়া যাবে।
– শারিরিক ব্যায়ামের জন্য দিনে এক বার বাইরে যাওয়া যাবে। একাকী কিংবা পরিবারের একজন সদস্যকে সাথে করে নিয়ে যাওয়া যেতে পারে।
– চিকিৎসার প্রয়োজনে কিংবা অসহায় কাউকে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে বাইরে বের হওয়া যাবে।
– জরূরী সেবা ও সংস্থা সমুহে যারা কাজ করেন তারা তাদের কাজে যাওয়া আসার উদ্দেশ্যে ।

স্কটল্যান্ডে সবধরনের জন সমাগম সম্পুর্ন ভাবে নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। শেষকৃত্য বা জানাযায় শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যরা যোগ দিতে পারবে।
ওদিকে পুলিশ স্কটল্যান্ড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সরকারের নতুন ঘোষনাকে বাস্তবায়ন করতে তারা টহল জোরদার করবে। কেউ যাতে সরকারী নীতিমালা লঙ্গন না করে সে লক্ষ্যে তারা শহরের গুরুত্বপুর্ন স্থান সমুহে বিশেষ অভিযান শুরু করবে।

পুলিশ স্কটল্যান্ড কতৃক প্রচারিত সতর্ক বার্তা (২৩ মার্চ ২০২০)

স্কটল্যান্ডের চিফ মেডিকেল অফিসার বলেন বর্তমানে স্কটল্যান্ডে ২৩ জন মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। এদের প্রত্যেকেই জনপ্রতি ৪০০-৫০০ লোককে সংক্রমন করে থাকতে পারেন। ইতিমধ্যে যে ১৪ জন লোক মারা গেছেন তাদের প্রত্যেকে হয়ত জনপ্রতি ১০০০ লোকের মধ্যে ইতিপুর্বে এই ভাইরাস ছড়িয়ে গেছেন।
উার্স্ট পরিশেষে ফার্স্ট মিনিষ্টার বলেন, ‘অনেক কষ্ট করে হলে ও আমরা সবাই যদি যথাযথভাবে নির্দেশনাগুলি মেনে চলি তাহলে অনেক কম লোক মারা যাবে। আসুন আমরা সবাই মিলে দায়িত্ববান নাগরিক হিসাবে দেশের মানুষের প্রতি ভালবাসা ও সম্মান প্রদর্শন করি, সবাইকে রক্ষা করি এবং নিজেরা ও নিরাপদ থাকি‘


আপনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কি-না তা নির্ণয় করতে স্কটিশ সরকার চালু করেছে অনলাইন সেলফ হেলপ টুল। এখানে আপনার শারিরিক অবস্থা সম্পর্কে কয়েকটি প্রশ্ন করা হবে। অত:পর আপনার করণীয় তা বলে দেয়া হবে। গাইডটি ব্যাবহার করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।
https://bit.ly/2wjqEhL

সম্পাদক: মিজান রহমান
প্রকাশক: বিএসএন মিডিয়া, এডিনবরা, স্কটল্যাণ্ড থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: