শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম (পরীক্ষামুলক স¤প্রচার)

স্কটল্যান্ডে করোনা ভাইরাস (বিস্তারিত)

ডান্ডিতে অনুষ্ঠিত হল পিঠা উৎসব ও কমিউনিটি পুনর্মিলনী 




বাংলাস্কট নিউজ (ডেস্ক রিপোর্ট): ৯ জানুয়ারি ২০২৩

আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে প্রতি বছরের ন্যায় ডান্ডিতে অনুষ্ঠিত হয়ে পিঠা উৎসব এবং কমিউনিটি পুনর্মিলনী। বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ডান্ডির উদ্যোগে গত ৮ জানুয়ারি ২০২৩ ইং রোববার দুপুরে স্থানীয় ডাডহোপ মাল্টিকালচারাল সেণ্টারে আয়োজিত হয় এই অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ডান্ডির সভাপতি জাকির হোসন। অনুষ্ঠানে আগত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন এসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ আজম খান বিদ্যুৎ এছাড়া সংগঠনের চেয়ারম্যান বারী গাফ্ফার আয়োজক কমিটির কার্যক্রমের ভ‚য়সী প্রশংসা করেন।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন হয় কেক কাটার মাধ্যমে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডান্ডিতে বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যারা অসামান্য অবদান রেখে আসছেন এমন কয়েকজন। আগতরা শ্রদ্ধাভরে অবদানের জন্য তাদরে প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

স্থানীয় বাংলাদেশী মহিলারা অনুষ্ঠানে নিয়ে আসেন বাংলার ঐহিত্যবাহী নানা ধরনের সুস্বাদু পিঠা ও পুলি।

উৎসবের দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সাস্কৃতিক সম্পাদক আজিম মাহমুদ সুমন এবং যুগ্ম সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো: কিবরিয়ার পরিচালনায় আয়োজিত হয় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। দেশাত্মবোধক গানের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি করেন তানিশা। এতে জনপ্রিয় সংগীত পরিবেশন করেন আজিম মাহমুদ সুমন ও জেমস। আগতরা আগ্রহভরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।

ডান্ডি বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট হারুন রিপন এবং মোহাম্মদ আরিফ, সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসান সহ কমিটির সকল সদস্যদের তত্বাবধানে পরিবেশিত হয় মধ্যহ্নভোজ।

ডান্ডি এবং পাশ্ববর্তী এলাকাসমুহ থেকে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী কমিউনিটির সদস্যরা সপরিবারে যোগ দেন অনুষ্ঠানে। এর ফলে অনুষ্ঠানস্থল পরিণত হয় বাংলাদেশী কমিউনিটির এক মিলনমেলায়।

একটি চমৎকার অনুষ্ঠান আয়োজনের উদ্যোগ গ্রহন করার জন্য আয়োজকদের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন আগতরা। তারা মনে করেন এ ধরনের আয়োজন কমিউনিটির সকলের মধ্যে যোগাযোগ তৈরী ও সম্পর্ক উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভুমিকা রাখবে।

 

উক্ত আয়োজনে নানাভাবে সহযোগিতা করার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন আয়োজকরা। ভবিষ্যতে তারা এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য ঐতিহাসিক ভাবে বাংলাদেশের সাথে ডান্ডির একটি বিশেষ যোগসুত্র রয়েছে। ৬০ এর দশকে বাংলাদেশ (তদানিন্তন পুর্ব পাকিস্তান) থেকে আমদানিকৃত পাটের উপর ভিত্তি করে ডান্ডিতে চালু ছিল টেক্সটাইল শিল্প যা ছিল স্থানীয় অর্থনীতির মুল চালিকাশক্তি। পাটভিত্তিক টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে উচ্চতর শিক্ষা গ্রহনে সেসময় ডান্ডিতে আসতেন বাংগালিরা। আদমজী জুট মিলের কারনে নারায়নগঞ্জ শহরটি আজও লোকমুখে “বাংলার ডান্ডি” বলে পরিচিত। বাংলাদেশ থেকে সর্বশেষ পাট বোঝাই জাহাজ ‘বাংলার উর্মি‘ ১৯৯৮ সালে ২০ অক্টোবর নোঙর করেছিন ডান্ডি বন্দরে।


এভাবেই ডান্ডিতে গড়ে ওঠে বাংগালিদের বসতি। বর্তমানে ডান্ডি বাংলাদেশী কমিউনিটির নতুন প্রজন্ম উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে তুলনামুলক ভাবে এগিয়ে রয়েছেন। তাছাড়া স্কটিশ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বিরাট ভুমিকা রাখছেন স্থানীয় বাংলাদেশীরা।

সম্পাদক: মিজান রহমান
প্রকাশক: বিএসএন মিডিয়া, এডিনবরা, স্কটল্যাণ্ড থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: