সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম (পরীক্ষামুলক স¤প্রচার)

স্কটল্যান্ডে করোনা ভাইরাস (বিস্তারিত)

এডিনবরায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন: কাউন্সিলের উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে স্থায়ী শহীদ মিনার




এডিনবরা (২১ শে ফেব্রুয়ারী ২০২০ )

স্কটিশ রাজধানী এডিনবরায় উদযাপিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২০ ও মহান একুশে ফেব্রুয়ারী। সিটি অব এডিনবরা কাউন্সিলের লর্ড প্রভোস্টের উদ্যোগে স্থানীয় সিটি চেম্বারে ২১ শে ফেব্রুয়ারী সকাল ৯.৩০ টায় আয়োজিত হয় এক সংবর্ধনা সভা ও মাল্টিলিঙ্গুয়াল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

ইন্টারন্যাশন্যাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ সোসাইটি স্কট্ল্যান্ড (আইএমএলএস) এবং এলরেক এর চেয়ার ফয়ছল চৌধুরী এমবিই সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উদ্ধোধনী বক্তব্য রাখেন রাইট অনারেবল লর্ড প্রভোষ্ট কাউন্সিলার ফ্রাঙ্ক রস।

তিনি বলেন, এডিনবরা সিটি ভিন্ন ভিন্ন সংস্কৃতি ও ভাষার গুরুত্ব অনুধাবন করে গত এক যুগ ধরে সিটি চেম্বারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনে নানাভাবে সহযোগিতা করে আসছে। ১৯৫২ সালে বাংলাদেশে সংঘটিত ভাষা আন্দোলনের পটভুমি তুলে ধরে, এডিনবরায় স্থায়ীভাবে একটি শহীদ মিনার স্থাপনের লক্ষ্যে কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহনের আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

‘মাতৃভাষার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা‘ শীর্ষক আলোচনায় উপস্থাপন করেন- বাইলিঙ্গুয়ালিসম ম্যাটার এর ডাইরেক্টর ও ইউনিভার্সিটি অব এডিনবরার ভাষাতত্বের প্রফেসর এন্টোনিলা সোরাসি। বিভিন্ন গবেষনার উদ্ধৃতি তুলে ধরে শিশুদের মাতৃভাষা শিক্ষার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সমুহ তুলে ধরেন। তিনি বলেন, একাধিক ভাষা জানা শিশুদের মেধাগত বিকাশ হয় দ্রুত ও সৃজনশীলতা অন্যদের তুলনায় অনেক বেশী এর ফলে তারা সহজেই জটিল পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়। এছাড়া গবেষনায় দেখা গেছে, যারা একাধিক ভাষায় কথা বলেন তাদের বয়সজনিত বিভিন্ন রোগ হওয়ার প্রবণতা অন্যদের তুলনায় কম থাকে।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট মানবাধিকার গবেষক ও লেখক প্রফেসর জেম পালমার ওবিই, হ্যাপি টু ট্রান্সলেট প্রজেক্টের পরিচালক রোহিনী শর্মা এবং পোলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা জোয়ানা।

আয়োজনের দ্বিতীয় পর্বে বাংলা স্কট নিউজের সম্পাদক মিজান রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে এডিনবরা বাংলা স্কুলের শিক্ষিকা তানজিলা রফিকের তত্বাবধানে বাংলা স্কুলের শিক্ষার্থীরা দলীয়ভাবে বাংলা কবিতা আবৃত্তি করে।

এছাড়া কেন্টনিজ ভাষায় সঙ্গীত পরিবেশন করেন হংকং বংশোদ্ভুত বিশিষ্ট ব্যান্ড সঙ্গীত শিল্পী জেনিস লি।
অনুষ্ঠান শেষে সিটি চেম্বার চত্বরে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অপর্ন করা হয়। ভাষা শহীদদের স্মরনে এডিনবরা কাউন্সিলের পক্ষ থেকে সর্বপ্রথম পুষ্পস্তবক অর্পন করেন লর্ড প্রভোষ্ট এরপর থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ফখরুল ইসলাম, বাংলাদেশ সোশ্যাল এন্ড কালচারাল এসোসিয়েশন (বিএসসিএ) এর সভাপতি ফারুক শিকদার, আগত অতিথীবৃন্দ এবং স্থানীয় কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

সিটি অব এডিনবরা কাউন্সিলের পৃষ্টপোষকতায় এবারের আয়োজনে সহযোগীরা হলেন, ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ সোসাইটি স্কটল্যান্ড, এডিনবরা এন্ড লোদিয়ান রিজিওন্যাল ইকুয়ালিটি কাউন্সিল (এলরেক), থিসল শাপলা কালচারাল গ্রুপ , কাউন্সিল অব বাংলাদেশীজ ইন স্কটল্যান্ড, বাংলা স্কট নিউজ, হ্যাপী টু ট্রান্সলেট, বাই লিঙ্গুয়ালিজম ম্যাটার এবং শোনহ স্কটল্যান্ড রেডিও। কাউন্সিলরবৃন্দ, পদস্থ কর্মকর্তা ও শিক্ষাবিদ সহ বিভিন্ন ভাষাভাষী বিপুল সংখ্যক লোক যোগ দেন অনুষ্টানে।

শহীদ মিনার প্রকল্পে সহায়তা দানের জন্য স্থানীয় বাঙ্গালী কমিউনিটির প্রতি আহবান জানিয়েছেন এর উদ্যোক্তা ফয়ছল চৌধুরী এমবিই। উক্ত প্রকল্পের সাথে যারা সংম্পৃক্ত হতে আগ্রহী তাদেরকে মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ সোসাইটির (আই.এম.এল.এস) সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

সম্পাদক: মিজান রহমান
প্রকাশক: বিএসএন মিডিয়া, এডিনবরা, স্কটল্যাণ্ড থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: