শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম (পরীক্ষামুলক স¤প্রচার)

প্রত্যাশিত জয়ে সেমিতে বাংলাদেশ




স্টাফ রিপোর্টার,
629
বাংলাদেশের যুব ফুটবল দল ভুটানের বিরুদ্ধে ২-০ গোলে জিতে সাফ (অনূর্ধ্ব-১৯) যুব ফুটবলের সেমিফাইনালে উঠেছে। এখন বাংলাদেশের সামনে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াই। ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশ, ভুটান ছাড়াও রয়েছে নেপাল। আগামীকাল নেপালের বিরুদ্ধে গ্রুপের শেষ ম্যাচ। ভুটানকে হারিয়ে তিন পয়েন্ট পেয়েছে নেপাল।

শেষ চারে উঠার হিসাবটা অনেকটাই সহজ ছিল বাংলাদেশের জন্য। কারণ ড্র হলেও বাংলাদেশ সেমিফাইনালে উঠবে। কিন্তু নেপালে গতকাল শনিবার অনুষ্ঠিত খেলাটিতে এমন সহজ সমীকরণের মধ্যে মাঠে নামলেও কোচ খেলোয়াড়দের মধ্যে স্বাগতিক শহরটি সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে অনেক উঁচুতে বলে একটা ভয় ছিল। কেননা প্রায় সমুদ্র সমতলে থাকা বাংলাদেশের বিপরীতে সাড়ে চার হাজার ফিট উচ্চতার নেপালে আরেক পাহাড়ি দেশ ভুটানের ফুটবলারদের জন্য ব্যাপারটা ছিল অনুকূল। তারপরও খেলোয়াড়দের ভালো পারফরম্যান্স এবং আত্মবিশ্বাসের কারণে খেলাটিতে উতরে গেছে বাংলাদেশ যুব ফুটবলাররা।

কোচ সাইফুল বারি টিটুও খেলা শেষে এই উচ্চতার সমস্যার কথা উল্লেখ করেছেন। নেপালকে তিনি বলেন, ‘আমরা সমুদ্র পৃষ্ট থেকে উঁচুতে খেলার সমস্যাটির মুখোমুখি হয়েছি। ভুটান বরং এ ক্ষেত্রে আনুকূল্য পেয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা যেভাবে খেলা শুরু করতে চেয়েছিলাম সেভাবে পারিনি। তবে সৌভাগ্যক্রমে দ্রুত দুই গোল পেয়ে যাওয়ায় আমরা এগিয়ে যাই।

নেপালের ললিতপুরে ফুটবল একাডেমির টার্ফে খেলা হয়েছে। আগেই প্রস্তুতি ছিল বাংলাদেশের ছেলেদের। টার্ফের প্রস্তুতি কাজে লেগেছে। বাংলাদেশের ফুটবলাররা ৪১ মিনিট অপেক্ষা করেছে গোলের জন্য। নেপালের দর্শক এবং প্রতিপক্ষ, দু’টোই ছিল বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। সব কিছু পেছনে ঠেলে যুব ফুটবল দল গোলের দেখা পায়। ম্যাচের প্রথমার্ধেই দুই গোল করেছে। ৪২ মিনিটে বিকেএসপির ছাত্র রোহিত সরকার সাইড ভলিতে গোল করেন ১-০। বাংলাদেশ এই গোলের পর স্বস্তি পায়। দুই মিনিট পরই মান্নাফ রাব্বীর গোলে জয়টা নিশ্চিয়তার পথে যায় ২-০। স্ট্রাইকার মান্নাফ রাব্বী প্রিমিয়ার লিগে রহমতগঞ্জের জার্সি গায়ে খেলেন।

তবে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকেও খেলার বাকি ৪৫ মিনিট দুর্ভাবনায় কেটেছে বাংলাদেশ শিবিরের। ভুটানের উপর বিশ্বাস রাখবে না শাহরিয়ার, মান্নাফ, বিপলু, মাসুক জনি, রহমান মিয়া, ইমন, টুটুলরা। কোচ সাইফুল বারী টিটুর নির্দেশনা ছিল, পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে হবে। গোল সংখ্যা বাড়ার চেয়ে ২-০ স্কোরটা ধরে রাখার পক্ষেই ছিলেন কোচ।

অনূর্ধ্ব-১৬ সাফে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ললিতপুরে বাংলাদেশের জয়টা বড় উপলক্ষ্যই। বাংলাদেশের ফুটবলাররা এই জয়ের ধারাবাহিকতা রাখতে প্রস্তুত। নেপাল ফুটবল দল অনেক বেশি শক্তিশালী। কারণ নেপালের বয়স ভিত্তিক ফুটবল দল সাফের যে কোনো টুর্নামেন্টে ফেভারিটের তকমা পায়। বাংলাদেশের কাছে এটা অলিখিত ফাইনাল ম্যাচ।

ছয় দল নিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবল হচ্ছে। পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা নাম প্রত্যাহার করে নেয়ার কারণে দলগুলো খেলছে দুই গ্রুপে। ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে আফগানিস্তান, মালদ্বীপ, ভারত।

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ঃ

আনিসুর, রেহিত সরকার, রকি, ইব্রাহিম, শাহরিয়ার, মান্নাফ, বিপলু, মাসুক জনি, রহমান মিয়া, ইমন, টুটুল।

সম্পাদক: মিজান রহমান
প্রকাশক: বিএসএন মিডিয়া, এডিনবরা, স্কটল্যাণ্ড থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: