সোমবার, ২৫ মে ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম (পরীক্ষামুলক স¤প্রচার)

স্কটল্যান্ডে করোনা ভাইরাস (বিস্তারিত)

বিজয় দিবসে বাংলাদেশের সাহায্যার্থে এডিনবরায় চ্যারিটি অনুষ্ঠান




বাংলা স্কট রিপোর্ট (এডিনবরা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮):
মহান বিজয় দিবসের প্রাক্কালে এডিনবরায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল এক ব্যাতিক্রমধর্মী আয়োজন। বাংলাদেশের দুস্থ মা ও শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে বিজয় দিবসে স্কটল্যান্ডের রাজধানী এডিনবরায় অনুষ্ঠিত হয়, চ্যারিটি ক্রিসমাস ইভেন্ট ফর শ্রীপুর ভিলেজ – শীর্ষক এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বাংলা-স্কট ট্রাস্ট ও ফ্রেন্ডস অব শ্রীপুর ভিলেজ এর উদ্যোগে গত ১৬ ডিসেম্বর রোববার নর্থ এডিনবরাস্থ রয়স্টন ওয়ার্ডিবার্ণ কমিউনিটি সেণ্টারে এই ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানের কার্যক্রম। অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন এডিনবরা নর্থ এন্ড লীথ এলাকার এমপি ডেডরি ব্রুক। শ্রীপুর ভিলেজ এর স্কট্ল্যান্ড প্রতিনিধি উইল থর্প সংস্থার বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন তার বক্তব্যে। এসময় একটি তথ্যচিত্র ও প্রদর্শিত হয়। এরপর বক্তব্য রাখেন ড. সুমিত কোনার ও সমাজ কর্মী ফুলমায়া লামা।
সাস্কৃতিক পর্বে এডিনবরা বাংলা স্কুলের শিক্ষিকা শারমিন জাহানের তত্ত¡াবধানে স্কুলের শিশুরা কবিতা আবৃত্তি ও দেশাত্ববোধক গান পরিবেশন করে। নেপাল স্কট্ল্যান্ড এসোসিয়েশন সদস্যরা পরিবেশন করে ট্রাডিশন্যাল নেপালী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা। নৃত্য পরিবেশন করেন হিমাংসী, আইয়ুসমা ও শর্মিলী লামা। শিশু শিল্পী সাইসারান যন্ত্রসংগীত এবং সুদিপ্তা সাহার বাংলা গান আগতরা আগ্রহভবে উপভোগ করেন। অন্যদিকে রবিন হোসাইনের গাওয়া বাংলার ঐতিহ্যবাহী বাউল সঙ্গীত দর্শকদের বিমোহিত করে।
শারমিন বর্ষা ও শাহেদ মোস্তফার তত্ত¡াবধানে আয়োজিত হয় শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। এছাড়া ঐতিহ্যবাহী শ্রীপুর গ্রামের মহিলাদের হাতে তৈরি নানাবিধ কুটির শিল্পের পণ্য এবং কার্ড বিক্রি হয় চ্যারিটি স্টলে।
চ্যারিটির সহায়তায় স্থানীয় অ-বাঙ্গালী কমিউনিটির বিপুলসংখ্যক লোক এতে যোগ দেন। স্কটিশ রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ও স্থানীয় অধিবাসীরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ।
অনুষ্ঠানের আয়োজক মিজান রহমান বলেন, “আমাদের মাতৃভুমির উন্নয়নে যে সকল সংস্থা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ব্রিটিশ চ্যারিটি সংস্থা শ্রীপুর ভিলেজ। মূলত তাদেরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে আজকের এই আয়োজন’’
পরিশেষে, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট তুলে দেন শ্রীপুর ভিলেজের প্রতিনিধি উইল থর্প।
আয়োজনের সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ছিলেন ইশরাত জাহান, ফাহমিদা সুলতানা, শাহেদ মোস্তাফা ও মিজান রহমান। বাংলা স্কট ট্রাস্টের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে আগতদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে সর্বসাকুল্যে প্রায় ৪০০ শত পাউন্ড সংগৃহীত হয়।
উলে­খ্য, ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ এর প্রাক্তন কেবিন ক্রু প্যাট্রিসিয়া কের, এমবিই- এর উদ্যোগে ১৯৮৯ সালে ঢাকা থেকে ৭০ কি:মি: দুরে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর গ্রামে প্রতিষ্ঠিত হয় এই সংস্থাটি। বর্তমানে ১৩ একর জায়গার উপর শিশুপল্লী নামক এই প্রকল্পটি তার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
এই সংস্থার মূল কাজ হচ্ছে দু:স্থ ও নির্যাতিত মহিলা ও শিশুদের সার্বিক ভরণপোষন চালিয়ে তাদেরকে সচেতন, স্বনির্ভর ও শিক্ষিত করে তোলা। এবং তাদের আত্ব-কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। এদের রয়েছে নানাবিধ কর্মসূচী। গাজীপুর জেলার বাইরেও রয়েছে নানা প্রকল্প। এই সংস্থার সবচে ভাল দিক হচ্ছে আর্থিক দিক দিয়ে এরা অনেকটা আত্বনির্ভরশীল এবং স্বয়ংসম্পুর্ন। সংস্থার উপকারভোগীদের নানা কারিগরী বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষ করে তোলা হয়। তারা নিজ হাতে তৈরি করেন নানা কারুপণ্য, শোপিছ ও কার্ড। যা বিক্রি হয় বিশ^ব্যাপী এবং এ থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে সংস্থান হয় যাবতীয় ব্যয়। ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ বিনামূল্যে এসব মালামাল ঢাকা থেকে পৌছে দেয় বিশে^র বিভিন্ন। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে রয়েছে এদের স্বেচ্ছাসেবী ফ্রেন্ডস গ্রুপ যারা মূলত এসব পণ্য বিক্রি করে অর্থ সংগ্রহ করে থাকে। বিশ্বব্যাপি তাদের রয়েছে একটি নেটওয়ার্ক যারা মূলত ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ এর অবসরপ্রাপ্ত কর্মী।
নারী ক্ষমতায়নের উজ্জল দৃষ্টান্ত হিসাবে ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করেছে এই সংস্থাটি। প্যাট ক্যার সংস্থাটির দেখভাল করতে গাজীপুরের শিশুপল্লীতেই থাকেন অধিকাংশ সময়।
শ্রীপুর ভিলেজ চ্যারিটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এবং কার্যক্রমে সহযোগিতা করতে চাইলে তাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন: www.sreepurvillage.org

Visits: 13

সম্পাদক: মিজান রহমান
প্রকাশক: বিএসএন মিডিয়া, এডিনবরা, স্কটল্যাণ্ড থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: